খেলা-ধুলা

যেসব রেকর্ড হলো তামিম-লিটনের জোড়া সেঞ্চুরিতে

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আজ তৃতীয় ওয়ানডেতে বেশ কিছু রেকর্ড হয়েছে বাংলাদেশের ইনিংসে
বৃষ্টির পর ‘ছক্কা-বৃষ্টি’! আর এই বৃষ্টি যেন রাঙিয়ে দিল মাশরাফি বিন মুর্তজাকে। অধিনায়ক হিসেবে তাঁর শেষ ম্যাচে অসাধারণ ব্যাটিং করেছেন তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। সেঞ্চুরি তুলে নেন দুজনেই। এর মধ্যে লিটনের ১৭৬ রানের ইনিংসে তো ওলট-পালট হয়েছে রেকর্ড বই। সিলেটে আজ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডেতে এমন কিছু রেকর্ড হয়েছে। আসুন জেনে নেই—

* ওপেনিং জুটিতে এর আগে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড ছিল ১৭০। ১৯৯৯ সালের ২৫ মার্চ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মেহরাব হোসেন-শাহরিয়ার হোসেন এ রেকর্ড গড়েছিলেন। আজ তামিম-লিটন মিলে ২৯২ রান তুলে রেকর্ডটি লিখিয়েছেন নতুন করে।

* তামিম-লিটন আজ ওপেনিং জুটিতে যে রান তুলেছেন তা বাংলাদেশের ওয়ানডে ইতিহাসে যেকোনো জুটিতে সর্বোচ্চ। এর আগের রেকর্ডটি ছিল সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহর। ২০১৭ সালে কার্ডিফে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৫ম উইকেটে ২২৪ রানের জুটি গড়েছিলেন দুজন। আজ ২৯২ রানের জুটিতে সে রেকর্ড ভাঙলেন তামিম-লিটন।

* ওয়ানডে ক্রিকেটে ওপেনিং জুটির ইতিহাসে এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ (২৯২)। ২০১৯ সালে ডাবলিনে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওপেনিং জুটিতে ৩৬৫ রান তুলেছিলেন জন ক্যাম্পবেল ও শাই হোপ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি পাকিস্তানের ইমাম-উল-হক ও ফখর জামানের। ২০১৮ সালে বুলাওয়েতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩০৪ রানের জুটি গড়েছিলেন দুজন।

* ওয়ানডেতে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংস এখন লিটন দাসের। ১৭৬ রানের ইনিংস দিয়ে আগের ম্যাচে তামিমের গড়া ১৫৮ রানের রেকর্ড ভাঙলেন তিনি।

* ওয়ানডেতে এ নিয়ে চতুর্থবারের মতো এক ইনিংসে দুটি সেঞ্চুরি তুলে নিলেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানেরা। এর মধ্যে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুবার, একবার করে নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের বিপক্ষে। তবে ওয়ানডেতে এক ইনিংসে এই প্রথমবারের মতো সেঞ্চুরি তুলে নিলেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার।

* ওয়ানডেতে বাংলাদেশের হয়ে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ছক্কা এখন লিটনের। ১৭৬ রানের ইনিংস খেলার পথে ৮টি ছক্কা মারেন তিনি। আগের রেকর্ডটি তামিমের। ২০১০ সালে চট্টগ্রামে এই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই ৭ ছক্কা মেরেছিলেন তামিম।

* ওয়ানডেতে এক ইনিংসে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি বাউন্ডারি মারার রেকর্ড এখন লিটনের। আজ ১৭৬ রানের ইনিংসে ২৪টি বাউন্ডারি (৮ ছক্কা ও ১৬ চার) মারেন তিনি। এর আগে রেকর্ডটি ছিল তামিম ইকবালের। আগের ম্যাচেই ১৫৮ রানের ইনিংস খেলার পথে ২৩টি (২০ চার ও ৩ ছক্কা) বাউন্ডারি মারেন তামিম।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close